বিসিএসে বসা হলো না পিংকীর, সড়কে ঝরল প্রাণ

বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নিতে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন গাজীপুরের পিংকী রাণী বর্মণ।

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ময়মনসিংহের চুরখাই এলাকায় শুক্রবার মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় তিনি মারা যান।

শুক্রবার ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজে তার বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় বসার কথা ছিল। বাবার সঙ্গে মোটরসাইকেলে পরীক্ষা কেন্দ্রে যাওয়া পথে তিনি দুর্ঘটনায় পড়েন।

নিহত পিংকী রাণী বর্মণ (২৫) গাজীপুর সদর উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের তালতলী গ্রামের নারায়ণ চন্দ্র বর্মণ ও মণিকা রাণী বর্মণের দ্বিতীয় সন্তান।

পিংকীর বাবার বরাত দিয়ে বড় ভাই নিতাই চন্দ্র বলেন, ৪৪তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার প্রস্তুতি নেন পিংকী। তার বিসিএস পরীক্ষার কেন্দ্র ছিল ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজ। পরিবারের সঙ্গে থাকতেন গাজীপুরের সদরের তালতলী গ্রামের বাড়িতে।

ময়মনসিংহে পরীক্ষা কেন্দ্র হওয়ায় বেশ কিছুদিন আগে ভালুকায় নানাবাড়িতে গিয়েছিলেন বলে তিনি জানান।

তিনি জানান, শুক্রবার ভোরে বাবা নারায়ণ চন্দ্র বর্মণ গাজীপুর থেকে মোটরসাইকেলে ভালুকা যান। সেখান থেকে পিংকীকে মোটরসাইকেলে নিয়ে আনন্দমোহন কলেজের উদ্দেশে রওনা হন।

“পথে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে চুরখাই এলাকায় পেছন থেকে একটি ডাম্প ট্রাক তাদের মোটরসাইকেলকে ওভারটেক করে সামনে গিয়ে হঠাৎ ব্রেক করে। এতে চালকের আসনে থাকা তার বাবা নিয়ন্ত্রণ হারালে পিংকী মোটরসাইকেলের পেছন থেকে পড়ে যান এবং পেছন থেকে ময়মনসিংহগামী একটি বাস তাকে চাপা দেয়।”

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

পিংকী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক (সম্মান) শেষ করেছেন এবং স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী ছিলেন।

জয়দেবপুর থানার ওসি মো. মাহতাব উদ্দিন বলেন, ঘটনাস্থল ময়মনসিংহ হওয়ায় সেখানকার পুলিশ এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ বলেন, ঘটনাটি শোনার পরপরই ঘটনাস্থলে গিয়ে ডাম্প ট্রাকটি আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। চালককে আটক করা সম্ভব হয়নি। ছাত্রী নিহতের ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এদিকে, পিংকীর মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গিয়াস উদ্দিন মিয়া পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা ও শোক জানিয়েছেন।

পিংকি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তরের (মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগ) শিক্ষার্থী এবং বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব হলের আবাসিক ছাত্রী ছিলেন বলে ডেপুটি-রেজিস্ট্রার মো. মজনু মিয়া জানান।